উবুন্টুতে ম্যাক ও ভিস্তা লুক

উবুন্টুর একটা বড় সুবিধা হল এর কাস্টমাইজেশনের অপশন প্রচুর। লিনাক্সের নিজস্ব ফিচারগুলোতো আছেই, চাইলে আপনি আপনার উবুন্টুকে ম্যাক বা ভিস্তা লুকও দিতে পারবেন। আমার ডেস্কটপের স্ক্রিনশটটা দেখুন। এতে ভিস্তার সাইডবার আছে আবার ম্যাকের মত ডকও আছে। সাইডবার আর ডক দুটোই পিসির অনেক কাজে ওয়ানক্লিক অ্যাকসেস প্রদান করে। যেমন, আমার সাইডবারে আমি ক্যালেন্ডার, ঘড়ি, মেইল নটিফায়ার, নোটস ও সিপিইউ মনিটর রেখেছি। আপনি চাইলে আরও অনেক কিছু রাখতে পারেন। এরকম অনেক গ্যাজেট ইন্টারনেট থেকে ডাউনলোড করে নিতে পারবেন। একই ভাবে নিচের ডকটিকে খেয়াল করুন। লক্ষ্য করবেন, আমার ডেস্কটপে কিন্তু নিচের টাস্টবার নেই। টাস্কবারটি আমি রিপ্লেস করেছি ডক দ্বারা। আমার ডকে আছে মিডিয়া প্লেয়ার, RSS রিডার, রিসাইকেল বিন ইত্যাদি। আমি যেহেতু নিচের টাস্কবারটি সরিয়ে ফেলেছি তাই সব রানিং ও মিনিমাইজড উইন্ডোও ডকে জমা হয়। একে একে বলি দুটোর কথা।

সাইডবারটির নাম Screenlets। উবুন্টুর Add/Remove এ গিয়ে সার্চ দিলেই পাবেন। ডিফল্টভাবে এতে কিছু গেজেট দেয়া থাকে। এর বাইরেও আপনি অসংখ্য গেজেট পাবেন বিভিন্ন সাইটে। অফিসিয়াল সাইট http://screenlets.org/index.php/ এও গ্যাজেটের একটা বিশাল কালেকশন আছে। দেখবেন সবই tar.gz ফরম্যাটে। আমি দেখেছি নতুন ইউজাররা tar.gz কে প্রচন্ড ভয় পায়। এই ফরম্যাট দেখলেই About Turn!!! 😉 তবে, গ্যাজেটের tar.gz ফাইলগুলোকে চালাতে আপনার কোন কমান্ড জানা লাগবে না। Screenlets ইন্সটল হবার পরে এর আইকন পাবেন উপরের প্যানেলে। সেটাতে রাইট ক্লিক করলে দেখবেন Install Screenlet নামে একটা অপশন আছে। সেটা সিলেক্ট করে ঐ tar.gz ফাইলটা ব্রাউজ করে দেখিয়ে দিলেই কাজ শেষ!

নিচের ডকটির নাম Avant। এটাও পাবেন Add/Remove এ। এটা ইন্সটল করার পর নিচের প্যানেলটি ডিলিট করে দিন। চালু উইন্ডোগুলো এই ডকে আনার জন্য ডকে রাইটক্লিক করে Doc Preference সিলেক্ট করে বামপাশ থেকে Applets সিলেক্ট করুন। এবার AWN Notification Daemon টা অ্যাকটিভেট করে দিন। আরও যা যা রাখতে চান একইভাবে অ্যাক্টিভেট করুন। এবার ডকটা একটু মডিফাই করতে হবে। Applets এর উপরের General মেন্যু সিলেক্ট করুন। এর আন্ডারে আবার General ট্যাব সিলেক্ট করুন (ডিফল্ট ভাবে করাই থাকে)। Automatically start AWN on logon এ টিক দিন, তাহলে প্রতিবার উবুন্টু চালুর সময় AWN ও চালু হবে। আপনার যদি অভ্যাস থাকে উবুন্টুর একাধিক ডেস্কটপে উইন্ডো রেখে কাজ করার তাহলে Show windows from all viewports এ টিক দিন। তাহলে সব ডেস্কটপের উইন্ডোগুলো ডকে এক সাথে দেখাবে। আপনি এক ডেস্কটপ থেকেই সব উইন্ডোতে যেতে পারবেন। কাজের সুবিধার জন্য Bar behavior থেকে Auto hide bar when not in use ও Keep below maximized windows when not in use অপশনদুটোও অ্যাকটিভেট করে নিন। আইকন ইফেক্ট থেকে আইকনগুলো সিলেক্ট করলে বা তাদের উপর মাউস রাখলে লাফাবে, ঘুড়বে না তাদের উপর স্পটলাইট পড়বে সেটা নির্ধারণ করে দিন। Bar Appearance ট্যাব থেকে 3D look সিলেক্ট করে দিল। Enable rounded corners এও টিক দিন। তার নিচে Bar angle, height, offset ইচ্ছামত দিন যেটা ভাল লাগে। কালারও কাস্টমাইজ করতে পারেন। হয়ে গেলে বের হয়ে আসুন। এবার দেখুন আপনার ডেস্কটপ এখন লিনাক্স, ম্যাক আর উইন্ডোজের মিশ্রণ! উবুন্টু একাই একশ!!!

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: