লিনাক্সে ভিডিও এডিটিং ও কনভার্টিং

লেখাটি লিখেছেনঃ ইশতিয়াক আহমেদ (ডার্কলড)
লেখাটি নেয়া হয়েছেঃ টেকটিউনস থেকে

আজ আমি যে বিষয় নিয়ে আলোচনা করবো তা হল লিনাক্সে ভিডিও এডিটিং নিয়ে। উইন্ডোজে থাকা কালে আমি প্রায় অনেকগুলো ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার নিয়ে ঘাটাঘাটি করেছি আর প্রায়শই ভিডিও এডিটিং ও কনভার্টিং এর কাজ করতে হত । লিনাক্সে আসার পর যে বিষয়টা নিয়ে disappoint ছিলাম তা হল লিনাক্স ভিত্তিক ভালো ভিডিও এডিটর এর স্বল্পতা নিয়ে।

তবে কাজের প্রয়োজনে অনেকদিন যাবত গুগলে ঘাটাঘাটি করে কিছু অসম্ভব ভালো না হলেও ভালো কিছু ভিডিও এডিটরের সন্ধান পেয়েছি তবে এডবি প্রিমিয়ারের মত প্রফেশনাল ভিডিও এডিটরের সমকক্ষ খুজেঁ না পেলেও এর কাছাকাছি কিছু ওপেনসোর্স ভিডিও এডিটর খুজেঁ পেয়েছি তাই ভাবলাম আপনাদের কে জানাই এই ভিডিও এডিটর গুলো সম্পর্কেঃ

[এখানে আমি বলে রাখি ভিডিও কনভার্টিং এর জন্য কমান্ডলাইন ভিত্তিক এ্যাপলিকেশন রয়েছে তবে সেগুলো নিয়ে লিখার পূর্বে এক্সপেরিমেন্ট করে দেখতে হবে তারপর সেগুলো নিয়ে লিখবো এব্যাপারে আপনারা অভিজ্ঞ হলে দয়া করে আমাকেও শেখাবেন আমি কমান্ডলাইন ব্যবহারের দিক থেকে তেমন একস্পার্ট না তাই ওগুলো নিয়ে লিখার ক্ষেত্রে আমাকে সেগুলোর ব্যাপারে অভিজ্ঞ হতে হবে আর আপনার পছন্দের কোন ভিডিও এডিটর বা কনভার্টার বাদ পড়ে থাকলে আমাকে জানাতে ভুলবেননা ভবিষ্যতে তাহলে সেগুলো নিয়েও লিখবো ]

লিনাক্স ভিডিও এডিটর

Cinelerra:

cinelerr লিনাক্সে ভিডিও এডিটিং ও কনভার্টিং | Techtunes

প্রথমেই যে ভিডিও এডিটর সম্পর্কে আপনাদের জানাবো তাহল Cinelerra। এটি তৈরী করেছে Heroine Virtual নামক কোম্পানী। লিনাক্স ভিত্তিক যে সব ভিডিও এডিটর রয়েছে তার মধ্যে এটি বেশ পুরোনো এটি প্রথম রিলিজ হয়েছিল August 1, 2002 এ। এটি প্রথমে Broadcast 2000 হিসেবে পরিচিত হলেও পরবর্তীতে এর নাম পরিবর্তন করে Cinelerra রাখা হয়। একটি নন-লিনিয়ার ভিডিও এডিটর হিসেবে এটি মূলত তিনটি কাজ ভালোভাবে করতে পারে তা হল ক্যাপচারিং, কমপোজিটিং এবং অডিও/ভিডিও এডিটিং।এটি জিপিএল লাইসেন্সের অধীনে একটি ফ্রি ও ওপেনসোর্স লিনাক্স ভিডিও এডিটর। তবে দেখা যাক কি কি ফিচার আছে এতেঃ

cinelerrashot লিনাক্সে ভিডিও এডিটিং ও কনভার্টিং | Techtunes

  • OpenGL: Cinelerra তে OpenGL সাপোর্ট থাকায় আপনি এনভিডিয়া গ্রাফিক্স কার্ডের মাধ্যমে বিভিন্ন ইফেক্ট সরাসরি রিয়েলটাইমে রেন্ডার্ড প্রিভিউ দেখতে পারবেন এবং ভালো গ্রাফিক্স কার্ড থাকলে উচ্চ-রেজুলেশনের ভিডিও প্লে করতে পারবেন।
  • ভিডিও কোডেক: এতে রয়েছে প্রয়োজনীয় ভিডিও কোডেক বা ফরমেট সাপোর্ট যেমনঃ wmv,dvd video,flv যেগুলো আপনি avi,MPG,H.264 এবং MPEG-4 এর মত স্ট্যান্ডার্ড ভিডিও ফরমেটে এক্সপোর্ট করতে পারবেন। এটি OpenEXR images ও সাপোর্ট করে।
  • ভিডিও প্রিভিউ: এতে রয়েছে দুটি ভিডিও প্রিভিউ উইন্ডো। একটির মাধ্যমে আপনি ইমপোর্ট করা ভিডিও প্লে করে দেখতে পারেন আর কম্পোজিটিং উইন্ডোতে টাইমলাইনে রাখা ভিডিও ব্যাবহৃত ট্রান্জিশন ইফেক্ট সহ প্রিভিউ দেখতে পারবেন।
  • মাল্টিট্রাক: অন্যান্য প্রফেশনাল ভিডিও এডিটরের মত এতে রয়েছে অডিও ভিডিওর জন্য মাল্টিট্রাকের ব্যবস্থা । অর্থাত টাইমলাইনে আপনি অডিও ভিডিওর জন্য মাল্টিট্রাক এ্যাড করতে পারবেন এবং ট্রাকগুলোর মধ্যে ট্রানজিশন ইফেক্ট প্রয়োগ করতে পারবেন।
  • অডিও/ভিডিও ইফেক্ট: Cinelerra তে আছে অডিও এবং ভিডিও ক্লিপে প্রয়োগের জন্য অনেক গুলো ইফেক্ট। ভিডিও ইফেক্টের মধ্যে Chroma key এর মত প্রয়োজনীয় ইফেক্ট যা দ্বারা ব্লু/গ্রীন স্ক্রিন এর সামনে অভিনেতা কে অভিনয় করিয়ে তারপর Chroma key এর মাধ্যমে ব্লু/গ্রীন স্ক্রিন অদৃশ্য করে কোন স্পেশাল-ইফেক্টের সাথে জুড়ে দেয়া যায়। এছাড়াও Blur,Motion Blur,Gradient,Histogram,Hue/Saturation সহ রয়েছে আরো অসংখ্য ইফেক্ট।
  • 64 bit: এই ভিডিও এডিটরটি অনেক আগে থেকেই 64 bit এর উপযোগী করে তৈরী তাই ভিডিও এডিটিং এ 64 bit প্রসেসরের পরিপূর্ন ব্যবহার এটি করতে পারে।

সুবিধা:

  • ১) ওপেনসোর্স: এটি ফ্রি ও ওপেনসোর্স বলে আপনি প্রয়োজনে জিপিএল লাইসেন্সের আওতায় এর উন্নয়ন ও করতে পারবেন বা ফিচার যুক্ত করতে পারবেন
  • ২) ৬৪ বিট প্রসেসর এর পূর্নাঙ্গ ব্যবহার করতে পারে এবং ওপেনজিএল সাপোর্ট থাকায় উন্নতমানের গ্রাফিক্সকার্ড থাকলে ব্যবহৃত ইফেক্ট সমূহের রিয়েলটাইম প্রিভিউ সুবিধা এবং HD ভিডিও ক্লিপ এডিটিং এর সুবিধা

অসুবিধা:

  • ১) আধুনিক ভিডিও এডিটরের অনেকগুলি ফিচার থাকলেও এর ইউজার ইন্টারফেস টি মোটেও আকর্ষনীয় নয় এমন কি নভিশ ইউজারদের এ ভিডিও এডিটরটি আয়ত্তে আনতে সময় লাগবে।
  • ২) মাঝে মধ্যে এ্যাপলিকেশন টি ক্রাশ করে আমি ব্যবহারের সময় ও একবার ক্রাশ করেছিল আর ভিডিও রেন্ডারের পর ভিডিওটি আমি মিডিয়া প্লেয়ার দিয়ে প্লে করতে পারিনি ইনস্টলের সময় ffmpegপ্যাকেজটি ইনস্টল হয়নি কি এরর জানি দেখিয়েছিল হয়তো এ কারনেই।

আপনি দুটো সাইট থেকে Cinelerra ডাউনলোড করতে পারবেন প্রথমটি হল Cinelerra এর অফিশিয়াল সাইট থেকে আর Cinelerra এর কমিউনিটি ভার্সন (CV) সাইট থেকে । অফিশিয়াল সাইট থেকে শুধু এ্যাপ্লিকেশনটির সোর্সকোড পাওয়া যাবে আর (CV) সাইট থেকে বিভিন্ন লিনাক্স ডিস্ট্রিবিউশনের জন্য বাইনারী প্যাকেজ ডাউনলোড করতে পারবেন। আর ডকুমেন্টেশন পেতে পারেন এখান থেকে।

আরো দুটি টিউটোরিয়ালের সোর্স হল

আমি একে রেটিং দেব ৩/৫ 3 star ratting লিনাক্সে ভিডিও এডিটিং ও কনভার্টিং | Techtunes

Kdenlive:

700px transition লিনাক্সে ভিডিও এডিটিং ও কনভার্টিং | Techtunes

Cinelerra এর পর যে ভিডিও এডিটরটি আমার নজর কেড়েছে তাহল Kdenlive । এর যে বিষয় টি আমাকে আকর্ষন করেছে তা হল এর সহজ সরল ইউজার ইন্টারফেস যা নভিশ ইউজাররা খুব সহজে আয়ত্বে আনতে পারে। এটিও একটি নন-লিনিয়ার ভিডিও এডিটর এবং এতে অডিও ভিডিওর জন্য মাল্টিট্রাক রয়েছে যাতে আপনি বিভিন্ন ট্রাকে অডিও ভিডিও ক্লিপ রেখে ট্রান্জিশন ইফেক্ট প্রদান করতে পারবেন। এতে Cinelerra এর মত অসংখ্য ইফেক্ট না থাকলেও প্রয়োজনীয় কিছু ইফেক্ট রয়েছে। তবে দেখা যাক কি কি ফিচার আছে এতেঃ

kdenlive লিনাক্সে ভিডিও এডিটিং ও কনভার্টিং | Techtunes

  • মাল্টিট্র্যাক সাপোর্টঃ টাইমলাইনে আনলিমিটেড অডিও/ভিডিও ট্র্যাক এড করার সুবিধা
  • Camcorder সাপোর্টঃ এটি রেগুলার ক্যামকর্ডার সহ FULL HD ক্যামকর্ডার সমূহ সাপোর্ট করে। সাপোর্টেড ক্যামকর্ডার এর লিস্ট এখান থেকে দেখতে পারেন। এছাড়া এটি দিয়ে আপনি ক্যামকর্ডারের Raw DV,avi ফরমেটের ভিডিও এডিটিং করতে পারে যদি dvgrab প্রোগ্রাম এবং ffplay ইনস্টল করা থাকে।
  • প্রজেক্ট ট্রিঃ Kdenlive চালু করলেই আপনি বাম পাশে প্রজেক্ট ট্রি দেখতে পাবেন যেখানে আপনি ভিডিও ক্লিপ সমূহ টাইমলাইনে আনার পূর্বে প্রাথমিক ভাবে সংরক্ষন করতে পারবেন এছাড়াও যে কোন ফোল্ডার থেকে ভিডিও সমূহ ড্র্যাগ-এন্ড-ড্রপ এর মাধ্যমে সহজেই প্রজেক্ট ট্রি তে সংরক্ষন করতে পারবেন। আর প্রজেক্ট ট্রি থেকে ভিডিও ক্লিপ সমূহ ড্র্যাগ-এন্ড-ড্রপ এর মাধ্যমে টাইমলাইনে নিয়ে আসতে পারবেন।
  • ভিডিও প্রিভিউঃ Cinelerra এর মত Kdenlive এ ও ভিডিও প্রিভিউ মনিটর রয়েছে তবে ৩টি ট্যাব আকারে। টাইমলাইন মনিটর এর মাধ্যমে টাইমলাইনে রাখা ভিডিও ক্লিপ সমূহের প্রিভিউ দেখা যাবে, ক্লিপ মনিটর এর মাধ্যমে প্রজেক্ট ট্রি তে রাখা ভিডিও ক্লিপ চালিয়ে দেখা যাবে আর ক্যাপচার মনিটরের মাধ্যমে ডিভিক্যামের ভিডিও ক্যাপচার করা ও প্লে করে দেখা যাবে যদি dvgrab প্রোগ্রাম এবং ffplay ইনস্টল করা থাকে।
  • অডিও ভিডিও কোডেক সাপোর্টঃ এটি Avi,wmv,realmedia,mpeg,mpeg-4 সহ নানান ফরমেটের ভিডিও ফাইল ইমপোর্ট ও এডিট করতে পারে এছাড়াও gif.Png,Jpeg,xcf (Gimp format),exr,tiff,svg ইত্যাদি ইমেজ ফরমেট ও সাপোর্ট করে। এছাড়াও কেডিএনলাইভ স্ট্যান্ডার্ড ফরমেটে ভিডিও এক্সপোর্ট করতে পারে। যেমনঃ
    • DV (PAL and NTSC).
    • Mpeg2 (PAL, NTSC and HDV) and AVCHD (HDV).
    • High quality h264.
    • Non-destructive formats.

    বা DVD ফরমেটেও একস্পোর্ট করা যায় যদি dvdauthor প্যাকেজ ইনস্টল করা থাকে।

    এছাড়াও অন্যান্য ভিডিও ফরমেটেও এনকোড করা যায় যেমনঃ

    • Mpeg2, mp4,flv, h264, xvid video.
    • Mp2, mp3 and ac3 audio.
    • Lossless video
    • Free video (Ogg vorbis)

    তবে ffmpeg প্যাকেজটি ইনস্টল থাকা ভালো।

  • ভিডিও এডিটিং টুলসঃ এতে রয়েছে Move/resize,Split clip,Spacing,Marker tool এর মত প্রয়োজনীয় টুলস যা আপনার ভিডিও এডিটিং এর কাজ কে সহজ করবে। এছাড়াও টাইমলাইন কে জুম-ইন জুম-আউটের অপশন রয়েছে যার ফলে ভিডিও ক্লিপ এর দৈর্ঘ্য বেশী হলে টাইমলাইন জুম-আউট করে পুরো ভিডিও ক্লিপ এর লেন্থ দেখা যাবে।

এছাড়াও Kdenlive এর পূর্নাঙ্গ ফিচার তালিকা এখান থেকে পেতে পারেন। আর বিভিন্ন লিনাক্স ডিস্ট্রিবিউশনের জন্য ডাউনলোড ইনস্ট্রাকশন পাবেন এখান থেকে।

এর সিস্টেম রিকোয়ারমেন্ট দেখতে পারেন এখান থেকে। ডকুমেন্টেশনের জন্য কেডিইএনলাইভ এর উইকিবুক দেখতে পারেন ভিডিও টিউটোরিয়ালের জন্য এখানে দেখুন আর কুইকস্টার্ট গাইড

একে রেটিং দেব ৪/৫ 4 star ratting লিনাক্সে ভিডিও এডিটিং ও কনভার্টিং | Techtunes

Open Movie Editor:

screen s লিনাক্সে ভিডিও এডিটিং ও কনভার্টিং | Techtunes

ওপেন মুভি এডিটর লিনাক্সের জন্য আরো একটি নন-লিনিয়ার ভিডিও এডিটর। তবে ব্যবহার করে যা মনে হল এটি প্রফেশনালদের চেয়ে নভিশ ইউজার দের ব্যবহারের উপযুক্ত । কারন উপরের ভিডিও এডিটর গুলোর মত এতে খুব বেশি ফিচার বা ফাংশনালিটি নেই । তবে এটি দেখতে অনেকটা কেডিইএনলাইভের মত তবে ইন্টার ফেস সাদামাটা । এটিকে অনেকটা উইন্ডোজ মুভিমেকারের মত মনে করতে পারেন। সহজ ইন্টারফেস খুব বেশি ফিচার বা ফাংশনালিটি নেই এমন একটি সাধারণ ভিডিও এডিটর। তবে এতে কিছু সমস্যা চোখে পড়েছে। প্রথমত এটি বেশ মেমরী হাঙ্গরী এবং ভিডিও ক্লিপ টাইম লাইনে আনার পর ভিডিও ক্লিপ টাইমলাইনের কয়েক ফ্রেম বাদ দিয়ে শুরু হয়। আর ভিডিওর দৈর্ঘ্য বাড়ানো কমানো যায়না।

তবে ভালো দিকের মধ্যে এতে রয়েছে অডিও ভিডিও এর জন্য একাধিক ট্র্যাক এড করার সুবিধা। এটি ভিডিও আউটপুট অর্থাৎ ভিডিও এনকোডিং এর জন্য ffmpeg কে ব্যবহার করে তাছাড়া ভিডিও এনকোডিং এর প্রয়োজনেই এই প্যাকেজ টি প্যাকেজ ম্যানেজার দ্বারা খুজে ইনস্টল করে নিন। আর ওপেন মুভি এডিটর ডাউনলোড করতে আপনার প্যাকেজ ম্যানেজারে এই এ্যাপলিকেশনটি সার্চ করে ইনস্টল করুন বা এখান থেকে বিভিন্ন লিনাক্স ডিস্ট্রিবিউশনে এ্যাপলিকেশনটি ইনস্টল করার তথ্যাবলী পাবেন। এবং আপনার সমস্যা সমূহ তাদের ফোরামে আলোচনা করতে পারেন।

একে রেটিং দেব ২/৫ 2 star ratting লিনাক্সে ভিডিও এডিটিং ও কনভার্টিং | Techtunes

Kino:

kino log লিনাক্সে ভিডিও এডিটিং ও কনভার্টিং | Techtunes

কিনো হচ্ছে লিনাক্সের জন্য আরো একটি ভিডিও এডিটর তবে এটি বিশেষত Digital Video (DV) এডিটিং এর জন্য । আপনি যদি ডিভি ক্যাম ইউজ করেন এবং আপনার ভিডিও কে এডিটিং ও স্ট্যান্ডার্ড ভিডিও ফরমেটে কনভার্ট করতে চান তবে কিনো আপনার জন্য। আগেই বলেছি এটি ডিভি ভিডিও এডিটর তাই এটি raw dv,avi ফরমেটের ভিডিও ই শুধু ইমপোর্ট করতে পারবে অন্যান্য ফরমেটে আমি চেষ্টা করে দেখেছি এইটা ইমপোর্ট করতে পারেনা।

তবে যে কাজটি এটি সফলতার সাথে করতে পারে তা হল এটি আপনার ডিভি ক্যাম থেকে ভিডিও ক্যাপচার করে তা এডিট ও কনভার্ট করতে পারে। এটি ডিভি ভিডিও ক্যাপচারের ক্ষেত্রে Firewire ও IEEE-1394 সাপোর্ট করে। এর মাধ্যমে আপনি সহজেই আপনার ভিডিও ক্লিপ কে এডিট,ট্রিম,ট্রানজিশন ইফেক্ট , নানান রকম ভিডিও ফিল্টার প্রদান করতে পারবেন ভিডিওতে।

এডিটিং এর পর ভিডিও কে বিভিন্ন ফরমেটে এক্সপোর্ট করতে পারবেনযেমন Raw DV, DV AVI, still frames, WAV, MP3, Ogg Vorbis, MPEG-1, MPEG-2, aএবং MPEG-4 এছাড়াও ভিডিও কে স্টিল ইমেজ ফ্রেমে এক্সপোর্ট করতে পারবেন ।এর অন্যান্য ফিচার সমূহ জানতে এখানে ক্লিক করুন।

kino edit লিনাক্সে ভিডিও এডিটিং ও কনভার্টিং | Techtunes

আমার ডিভিক্যাম না থাকায় এর কার্যক্ষমতা পরিক্ষা করে দেখতে পারিনি। তবে এর সহজ ইউজার ইন্টারফেস প্রয়োজনীয় টুলস ইফেক্টের উপস্থিতির বিচারে

আমি একে রেট করব ৩/৫ 3 star ratting লিনাক্সে ভিডিও এডিটিং ও কনভার্টিং | Techtunes

লিনাক্সের জন্য আরো কিছু ভিডিও এডিটর পেয়েছি তবে এগুলো এখনো ট্রাই করে দেখা হয়নি। তবে এগুলো নিয়ে পরবর্তী তে এই টিউনের দ্বিতীয় পর্ব লিখার ইচ্ছা আছে। এডিটর গুলো হল –

লিনাক্স ভিডিও কনভার্টার:

Avidemux:

screenshot1 লিনাক্সে ভিডিও এডিটিং ও কনভার্টিং | Techtunes

এটিকে অনেকে ভিডিও এডিটর এর কাতারে ফেললেও আমি এটিকে ভিডিও কনভার্টাররই বলবো। এর একটি দারুন বিষয় হল এটি বিভিন্ন ডিভাইসের উপযোগী ফরমেটে ভিডিওকে কনভার্ট করতে পারে যেমন আইপড, পিএসপি, SVCD,DVD,VCD এছাড়াও এটি ভিডিওকে অসংখ্য জনপ্রিয় ভিডিও ফরমেটে কনভার্ট করতে পারে যেমন Mpeg4(xvid), Mpeg4(x264), vcd, dvd, flv, DV, MPEG-2, H.264 এবং আরো অনেক এছাড়াও এটি অডিওকে এনকোড করতে পারে MP3(lame), AAC, Vorbis, Ac3, wav PCM ইত্যাদি।

এটি আমার প্রিয় একটি কনভার্টার। এবং এর ইউজার ইন্টারফেস অত্যন্ত সহজ সাধারন ইউজার খুব সহজে এটি আয়ত্বে আনতে পারবেন।আপনি খুব সহজে কোন ক্লিপের নির্দিষ্ট অংশকে এনকোড করতে পারবেন। এছাড়াও এতে রয়েছে একটি বিটরেট ক্যালকুলেটর এবং ডিভিডি সাবটাইটেল কনভার্ট করার সুবিধা। এটি GTK+ বা Qt graphics toolkit ভার্সনে পাওয়া যায় তবে আমি GTK+ ইউজার ইন্টারফেস প্রেফার করি।

এখান থেকে আপনি ইমপোর্টে এবং এক্সপোর্টের ক্ষেত্রে এর সাপোর্টেড ফরমেট সম্পর্কে জানতে পারেন যা সংখ্যায় অনেক। লিনাক্সে ভিডিও কনভার্টিং এর জন্য এটি হতে পারে আপনার প্রিয় এ্যাপলিকেশন।

আমি একে রেট করব ৩/৫ 3 star ratting লিনাক্সে ভিডিও এডিটিং ও কনভার্টিং | Techtunes

Mobile Media Converter:

 লিনাক্সে ভিডিও এডিটিং ও কনভার্টিং | Techtunes

জি হ্যাঁ নাম দেখেই বুঝতে পারছেন এটি কি? এটি একটি মোবাইল মিডিয়া কনভার্টার। আর সুখের খবর এটি উইন্ডোজ লিনাক্স উভয় প্লাটফর্মের জন্য তৈরী করা হয়েছে। খুবই সহজ একটি টুল আপনার ভিডিওটি এ্যাড করুন তারপর প্রয়োজনীয় ফরমেট সিলেক্টকরে কনভার্ট বাটনে ক্লিক করুন ব্যাস আপনার মোবাইল মিডিয়া ফরমেটে ভিডিও টি কনভার্ট হয়ে গেল। এটি কি কি ফরমেটে ভিডিও এক্সপোর্ট করতে পারে?

MP3, Windows Media Audio (wma), Ogg Vorbis Audio (ogg), Wave Audio (wav), MPEG video, AVI, Windows Media Video (wmv), Flash Video (flv) mobile phones audio format AMR audio (amr, awb) , 3GP video. iPod/iPhone compatible MP4 video.

এটি দিয়ে আমি প্রায় ইউটিউবের ভিডিও মোবাইল ৩জিপি ফরমেটে কনভার্ট করি। ধন্যবাদ তাদের কে এমন ভিডিও কনভার্টারের লিনাক্স সংস্করণ তৈরী করার জন্য।

আমি একে রেট করব ৪/৫ 4 star ratting লিনাক্সে ভিডিও এডিটিং ও কনভার্টিং | Techtunes

পরিশেষে এটুকু বলবো বেশ কয়েকটি ভিডিও এডিটর ট্রাই করার পর মনে হয়েছে সেগুলো ভালো তবে লিনাক্সে যতগুলো ভিডিও এডিটর available আছে সেগুলোর কোনটাতে ভালো ফিচার থাকলেও কিছু কিছু সমস্যা ও রয়েযায় যেটা প্রোডাকশনে ব্যবহারের ক্ষেত্রে ঝুঁকি থাকে যেমন সিনেলিরা হঠাৎ করে হ্যাং হয়ে যায় তাই এডবি প্রিমিয়ারের মত প্রফেশনাল ননলিনিয়ার ভিডিও এডিটরের সমকক্ষ হতে হলে এসকল বাগ বা সমস্যার সমাধান করে এডিটর কে আরো উন্নত ও স্টেবল করতে হবে।

আশাকরি এই টিউন দ্বারা আপনারা ভিডিও এডিটররা উপকৃত হবেন।

ধন্যবাদ।

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: