টিউটরিয়ালঃ উবুন্টুতে আলাদা পার্টিশন করে ফ্রেশ উবুন্টু ইন্সটল

উবুন্টু সাধারনত দুইভাবে ইন্সটল করা হয় – উবি দিয়ে উইন্ডোসের ভেতর ইন্সটল আর আরেকটি আলাদা পার্‌টিশন করে উবুন্টু ইন্সটল । দূরে বসে নতুন কেউ যদি আমাকে বলেন ” উবুন্টু কিভাবে ইন্সটল করব ? ” আমি তখন ভাবনাহীন উপায় উবি দিয়ে করতে বলে দেই । সাথে এ ও বলি , যদি উবুন্টুতে পুরোপুরি ট্রান্সফার হতে চান তবে ফ্রেশ ইন্সটলই ভালো , আর উবি দিয়ে ইন্সটল করলে ডিস্ক পারফর্‌ম্যান্সে সামান্য হেরফের হতে পারে । ব্যস! এই “সামান্য হেরফের” কথাটা মনে হয় সব সময় পীড়া দেয় ! তাই চিন্তা করলাম আলাদা পার্‌টিশন করে উবুন্টু ইন্সটলের একটা টিউটরিয়াল লেখা দরকার । চাচার ল্যাপটপটা সামান্য সময়ের জন্য পেয়ে সুযোগটা কাজে লাগিয়ে ফেললাম । এই টিউটরিয়ালে অনেক স্ক্রীন-শট ব্যবহার করা হয়েছে – লোড হতে সময় নিতে পারে ।

আমাদের কাজ দুইটা –

  • উবুন্টুর জন্য পার্‌টিশন করা ।
  • উবুন্টু ইন্সটল করা ।

উবুন্টুর জন্য দুইটা পার্‌টিশন লাগে , একটা উবুন্টূর ইন্সটলেশন পার্‌টিশন , আরেকটার নাম সোয়াপ পার্‌টিশন ( উইন্ডোসের ভার্‌চুয়াল মেমরির কাজ এখানে করে সোয়াপ , এতে সুবিধা হল আপনি যদি উবুন্টু আর লিনাক্স মিন্ট ইন্সটল দেন তবে তারা দুজনেই ব্যবহার করবে একই সোয়াপ । অন্যদিকে উইন্ডোসের প্রত্যেকটা ইন্সটলেশন আলাদা আলাদা ভার্‌চুয়াল মেমরি স্পেস ব্যবহার করবে – হার্‌ডডিস্কের কি নিদারুন অপচয় !)

উবুন্টু ইন্সটলের জন্য সর্‌বনিম্ন ৫ জিবির একটা পার্‌টিশন হলেই হয় । তবে কাজের সুবিধার জন্য আমার রিকমেন্ডেশন থাকবে ১০ জিবির ইন্সটলেশন পার্‌টিশন আর ১ জিবি সোয়াপ । আপনি যদি উইন্ডোসে থেকেই পার্‌টিশন করেন তবে শেষের একটা ড্রাইভ ( ধরুন G: আপনার হার্‌ডডিস্কের শেষ ড্রাইভ তবে G: কে ভেঙ্গে দুইটা ড্রাইভ বানান- একটা হবে ১০ জিবি , আরেকটা ১ জিবি ।

আরেকটা কথা বলে নেই , যারা পুরোপুরি উবুন্টুতে যেতে চান তারা একটা কাজ করতে পারেন । Home এর জন্য আলাদা একটা পার্টিশন করে নেবেন ৫ জিবি বা তার অধিক । এজন্য এই ড্রাইভতার মাউন্ট পয়েন্ট দিবেন /home । এতে পরের বার সেটাপ দেয়ার সময় আপনার হোমে থাকা সব ফাইল ঠিক থাকবে আর চিন্তা করা লাগবে না । ( ফ্রমঃ অভ্রনীল ভাইয়া )

চলুন কাজ শুরু করি –

  • প্রথমে আপনার বায়োস থেকে ফার্‌স্ট বুট ডিভাইস সিডি/ডিভিডি করে নিন ( করা না থাকলে ) । উবুন্টু সিডি ঢুকিয়ে রিস্টার্‌ট দিন । সিডি থেকে বুট হবে ।
  • আপনাকে ভাষা নির্‌বাচন করতে বলবে – ইংরেজী নির্‌বাচন করে এন্টার দিন ( বাংলা ও ব্যবহার করতে পারেন )
  • আপনাকে একটা মেন্যু দিবে এমনঃ
    Try ubuntu without any change to your computer
    Install Ubuntu
  • যারা যারা আগেই পার্‌টিশন করে নিয়ে নিয়েছেন তারা সিলেক্ট করবেন Install Ubuntu আর সোজা চলে যাবে এই টিউটরিয়ালের ইন্সটলেশন অংশে । আর যারা পার্‌টিশন করেননি তারা সিলেক্ট করবেন Try ubuntu without any change to your computer ।

পার্‌টিশন করার কাজঃ (Try ubuntu without any change to your computer এর পর থেকে )

Try ubuntu without any change to your computer সিলেক্ট করার পর উবুন্টু লাইভ বুট হবে । এখান থেকে আপনি সব কাজ করতে পারবেন , কিন্তু আমাদের উদ্দেশ্য পার্‌টিশন করা ।

  • বুট হওয়ার পর উবুন্টুর ডেস্কটপ আসবে । সেখানে উপরে থাকা System মেন্যু তে গিয়ে Administration থেকে Partition Editor এ যান ।

নতুন পার্‌টিশন করার জন্যতো জায়গা দরকার , আর সেটা আসতে হবে আপনার আরেকটা পার্‌টিশন ভেঙ্গেই ! আগে পার্‌টিশন ভেঙ্গে নেই …

(পার্‌টিশন তিন রকমঃ প্রাইমারি , এক্সটেন্ডেড আর লজিক্যাল । উবুন্টুর ইন্সটলের ড্রাইভটা লজিক্যাল হলেও সমস্যা নাই , কিন্তু সোয়াপ প্রাইমারি হতেই হবে । তাই আমরা কাজের সুবিধার জন্য শেষ পার্‌টিশন বেছে নিবো , এটাকেই পার্‌টিশন করব । )

  • Partition Editor খুলার পর পার্‌টিশনের লিস্ট দেখাবে । শেষ পার্‌টিশনটাতে রাইট বাটন ক্লিক করুন – Resize/Move নামে একটা অপশন পাবেন তাতে ক্লিক করুন । রিসাইজের উইন্ডো আসবে ।

  • এখানে ড্রাইভের এরোকে বামে টেনে প্রয়োজনমত কমিয়ে নিন , অথবা Free Space Following এ যতটুকু স্পেস কমাতে চান তা দিন । আমাদের দরকার ১০+১ = ১১ জিবি = ১১২৬৪ এম বি । এতটুকু কমিয়ে নিন । Resize/Move এ ক্লিক করে রিসাইজ করে নিন ।
  • এবার আমাদের খালি যায়গা ব্যবহার করে দুইটা নতুন পার্‌টিশন করব । খালি যায়গায় রাইট বাটন ক্লিক করে New এ ক্লিক করুন । নতুন পার্‌টিশন করার উইন্ডো আসবে ।

  • এখানে ডিফল্ট ভাবে পুরো স্পেস ( ১১ জিবি ) থাকে , টেনে ডানদিকে ১ জিবি খালি করুন বা Free space Following এ ১ জিবি = ১০২৪ মেগা করে নিন ।
    Create as এ Logical Partition থাকবে – পরিবর্‌তনের দরকার নেই ।
    File System থেকে ext3 সিলেক্ট করুন ।
    Add বাটনে ক্লিক করে পার্‌টিশনটা এড করে নিন ।

  • বাকি খালি যায়গায় আবার উপরের মত নতুন পার্‌টিশন করুন । এখানে প্যারামিটার কিছু পরিবর্‌তন হবেঃ
  • Create as এ Primary Partition সিলেক্ট করে নিন ।
  • File System এ সিলেক্ট করুন swap ।
  • Add বাটনে ক্লিক করে পার্‌টিশনটা যোগ করে দিন । ব্যস ! আমাদের পার্‌টিশনের কাজ শেষ!

উবুন্টু ইন্সটলেশনঃ

আশা করি আপনার এখন দুইটা পার্‌টিশন আছে । একটা ১০ জিবির ext3 পার্‌টিশন আরেকটা ১ জিবির swap . চলুন ইন্সটল করে নেই । যারা উবুন্টুতে পার্‌টিশন করেছেন তারা ডেস্কটপে থাকা “install” বাটনে ক্লিক কঅরে ইন্সটল চালু করেন । আর যারা উইন্ডোসে পার্‌টীশন করে “Install Ubuntu” দিয়েছেন তাদেরতো ইতোমধ্যে চালু হয়েই গিয়েছে ।

  • প্রথম উইন্ডোটা Location এর । Region এ সিলেক্ট করুন Asia … City এ সিলেক্ট করুন Dhaka । ( ধরে নিচ্ছি আপনি বাংলাদেশে এবং টাইম জোন ঢাকা , এখানে চিটাগাং ও পাবেন ! )
    Forward দিন ।

  • আপনাকে ভাষা নির্‌বাচন করতে বলবে । ইংরেজী নির্‌বাচন করুন – বাংলা ব্যবহার করলে প্রথম বার উল্টা-পাল্টা লাগতে পারে ! Forward দিন ।

  • এর পর পাবেন Keyboard Layout । USA সাজেস্ট করা আছে । সেটাই রেখে দিন । ইচ্ছা করলে বাংলাদেশের কি-বোর্‌ডও ব্যবহার করতে পারেন । Forward দিন । পার্‌টিশন ম্যানেজার খুলবে । ধাপটা একটু সাবধানে করবেন ।

  • আপনাকে চারটা আপশন দিবে ( যদি উইন্ডোস আগে থেকেই থাকে )
    • Install them side , choosing between them all startup . ( এই অপশনে হার্‌ডডিস্ক ২ ভাগ হয়ে যাবে ! )
    • Use the entire disk ( পুরো ডিস্ক উবুন্টকে দিয়ে দিবে !! )
    • Use the largest continuous space ( সবচেয়ে বড় খালি যায়গা )
    • Specify pertition manually ( এটাই আমাদের দরকার । এটা সিলেক্ট করুন) ।
    • Forward দিন ।

  • সকল পার্‌টিশনের লিস্ট পাবেন । আমাদের ১০ জিবির পার্‌টিশনটা বের করে সিলেক্ট করুন । Edit Partition এ ক্লিক করুন । একটা নতুন উইন্ডো পাবেন ।

  • Use as এ ext3 না থাকলে ext3 Journaling file system করে দিন ।
  • Format the partition এর বক্সে ক্লিক করে দিন ।
  • Mount Point এ একটা ব্যাক স্ল্যাশ “/” সিলেক্ট করুন । (ইউনিক্স/লিনাক্স টাইপ সিস্টেমে “/” হল রুট পার্‌টিশন )
  • OK করে বেরিয়ে আসুন ।

যারা উবুন্টুতে পার্‌টিশন করেছেন আর swap পার্‌টিশন করেছেন তাদের এটা করার দরকার নাই । যারা উইন্ডোসে করেছেন তাদের ১ জিবির পার্‌টিশনটা swap করতে হবে ।

  • ১ জিবির পার্‌টিশনটা সিলেক্ট করে Edit Partition এ যান ।
  • Use as এ swap area সিলেক্ট করে নিন ।
  • Format the partition এর বক্সে ক্লিক করে দিন ।
  • OK করে বেরিয়ে আসুন ।

এর পরের ধাপ ব্যক্তিগত তথ্য নিয়ে –

    Whats your name এ আপনার পুরো নাম দিতে পারেন ।

  • What name do you want to use to login? এ আপনি যে নাম দিলে লগ-ইন করতে চান তা দিন । সব ছোট হাতের অক্ষরে …
  • পাসওয়ার্‌ডের পাশাপাশি দুটো ঘরে দুইবার আপনার পাসওয়ার্‌ড দিন । পাসওয়ার্‌ড কিন্তু খুবই জরুরী মনে রাখবেন ।

নীচের দুটো অপশন আছে –

  • Log in automatically & Require a password to log in . ডিফাল্ট ভাবে Require a password to log in দেয়া থাকে ।
  • Log in automatically দিলে স্টার্‌টের সময় ইউজারনেম পাসওয়ার্‌ড চাইবে না , সরাসরি উবুন্টু ডেস্কটপ চালু হয়ে যাবে ।
  • এর পরের ধাপে ইন্সটলেশন জানতে চাইবে উইন্ডোস থেকে কোণ কিছু ইম্পোর্‌ট করবে কিনা । এটা আপনার ইচ্ছা ।

  • এর পরের ধাপে উবুন্টু ইন্সটলেশনের সময় কি কি পরিবর্‌তন কঅরতে যাচ্ছে তার একটা সারাংশ দেখাবে । আপনার সিলেক্ট করা দুইটা ডিস্ক ফরম্যাট হচ্ছে কিনা খেয়াল করে দেখে নেবেন ।

Install বাটনে ক্লিক করুন । ইন্সটল শুরু হবে । মোটামুটি ৮ মিনিটের মত সময় লাগবে ইন্সটল হতে । ইন্সটল শেষ হলে আপনাকে ডিস্ক বের করে বলবে রিস্টার্‌ট দেয়ার জন্য ।

রিস্টার্‌ট দিয়ে অবশ্যই উবুন্টুতে লগ-ইন করবেন । আমি আবারো বলছি সরাসরি উবুন্টুতে লগ-ইন করবেন উইন্ডোসে না , এসময় উবুন্টু ইন্সটলেশন পরবর্‌তি কিছু কাজ করে , সেজন্য এটা জরুরী ।

ব্যস! উবুন্টু ইন্সটল হয়ে গেল । স্বাগতম উবুণ্টুর জগতে !!!!

লেখাটা পিডিএফ ফরম্যাটে সংরক্ষন করে রাখুন এখান থেকেঃ ডাউনলোড

টিউটরিয়ালটা একসাথে আমার ওয়ার্ডপ্রেসেও প্রকাশিত ।

Advertisements
Comments
11 Responses to “টিউটরিয়ালঃ উবুন্টুতে আলাদা পার্টিশন করে ফ্রেশ উবুন্টু ইন্সটল”
  1. নাইম বলেছেন:

    ধন্নবাদ আমি লিনাক্স নিসি কিন্তু ইন্সটল করতে পারতে চিনা…আমাকে এইটা হেল্প করবে…

  2. অভ্রনীল বলেছেন:

    দারুণ!! নব্যদের বেশ কাজে দেবে।

    তবে ল্যুসিডে হয়তো ইন্সটলেশনের প্রথম দিকের দু-একটা ধাপ এই পোস্টের ছবির সাথে মিলবেনা।

  3. রাসেল বলেছেন:

    কাজে লাগবে। ধন্যবাদ জামাল ভাইয়া।

    আচ্ছা ভাইয়া আমি যদি আবার এনটিএফএস পাটিশনে ফিরে পেতে চাই তাহলে আমাকে কি করতে হবে?

    • ( এইটা বললে উবুন্টু কমিউনিটির মানুষেরা আমাকে ধরে মারবে ! 😉 )

      সবচেয়ে সহজ উপায়টাই বলি , এক্সপি এর ইন্সটলেশন সিডি থেকে বুট করবেন । ফাইল লোডিং , লাইসেন্স এগ্রিমেন্ট শেষে যখন ইন্সটল করার জন্য ড্রাইভ বাছাই করতে বলবে তখন যে ড্রাইভে উবুন্টূ ইন্সটল দেয়া হয়েছিল সেগুলো ডিলিট দিয়ে নতুন পার্টিশন করবেন । করে উইন্ডোস ইন্সটল না করে সিডিটা বের করে ফেলবেন ।
      খেয়াল করবেন , এখানে কিন্তু এক্সপি ইন্সটল দিচ্ছেন না ।

      আর আপনি যদি এক্সপেরিমেন্ট বেসিসে করেন এবং ভাঙ্গাভাঙ্গি করতে না চান তবে উবি দিয়ে করাই ভালো হবে ।

  4. s বলেছেন:

    আমি উবুন্টুত ১০.৪ ইন্সটল করতে চাই ল্যাপটপের জন্য। আমাকে সাহায্য করলে ভাল হয়। আমি কখনও উবুন্টু ব্যবহার করেনি।

  5. sukhon বলেছেন:

    আমি আসলে নতুন প্রথম উবুন্টুত ১০.৪ ইন্সটল করতে চাই। কোন দিন ব্যবহার করেনি উবুন্টুত বা লিনাক্স। আর হা আমি আমাদের প্রযুক্তি’র লিনাক্স সাবফোরাম পরছি। ওখানে অনেক কথা লেখা আছে। আমি প্রথমে ইন্সটল করতে চাই। আমি ওখানে ইন্সটল করার নিয়ম দেখলাম। তার পরও কোন নিয়মে ইন্সটল করব একটু চিন্তায় আছি ও কিছু প্রশ্ন আছে। আপনাকে ধন্যবাদ।

  6. sukhon বলেছেন:

    আচ্ছা এখানে কি office ব্যবহার করা যাবে? আর বাংলা কোন software ব্যবহার করা যায় একটু বলবেন। আর একটা প্রশ্ন হল windows এর মত করে software ইনম্টল করতে হয় নাকি commend লিখে করতে হয়।

    • অভ্রনীল বলেছেন:

      উবুন্টুর জন্য ও অফিস স্যুট রয়েছে, সেটা হল OpenOffice, ইচ্ছা করলে এটা আপনি উইন্ডোজেও ব্যবহার করতে পারবেন। বাংলা সফটওয়্যার বলতে কি বোঝাচ্ছেন? বাংলা লেখার সফটওয়্যার? উবুন্টুতে অভ্র ফনেটিক, ইউনিজয়, প্রভাত, ন্যাশনাল কি বোর্ড কাজ করে। অভ্র ছাড়া বাকীগুলো উভুন্টুর সাথে বাই-ডিফল্ট দেয়াই থাকে। আর সফটওয়্যার ইন্সটলের কথা বলছেন? আপনি মাউস ব্যবহার করতে পারলে সফটয়ওয়্যার ইন্সটল করা কোন ব্যাপারই না!

      উবুন্টু ব্যবহারে আগ্রহী হলে আপনি বরং আমাদের প্রযুক্তিতে নিবন্ধন করে ফেলুন। ওখানে একে একে আপনার প্রশ্নগুলো করুন, দেখবেন দ্রুত উত্তর পয়ে যাবেন। আসলে উবুন্টু নিয়ে তো অনেক সাইট আছে, আর সবার পক্ষে সব সাইটে যাওয়া সব সময় সম্ভব হয়না, ফলে দেখা যায় যে আপনার প্রশ্নগুলো হয়তো উত্তরবিহীনভাবেই থেকে যেতে পারে। সেজন্য এমন জায়গায় প্রশ্ন করা উচিত যেখানে প্রচুর উবুন্টু ব্যবহারকারি নিয়মিতই আনাগোনা করে। আমাদের প্রযুক্তি সেরকম একটা সাইট। এই ব্লগটা মূলত বিভিন্ন টিউটোরিয়ালের রেফারেন্স দেবার কাজেই ব্যবহার করা হয়, যাতে সহজেই যেকোন টিউটোরিয়াল খুঁজে পাওয়া যায়।

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: